আজ : ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Breaking News

২০১৯ সালের আগে সংসদ নির্বাচন নয়: নাসিম

১৪ দলের সমন্বয়ক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘২০১৯ সালের আগে কোনো নির্বাচন নয়। দেশে নির্বাচন হবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এবং ১৪ দলের নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে।’

তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়া এদেশের নাশকতা সৃষ্টিকারী ও জঙ্গি নেত্রী। তাকে মানুষ পুরোপুরিভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাই তার রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাওয়ার কোনো অধিকার নেই।’

বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় দিনাজপুর শহরের ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গণ মাঠে ১৪ দল আয়োজিত সন্ত্রাস বিরোধী মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমন্বয়ক আজিজুল ইমাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ও প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী অ্যাড. মোস্তাফিজুর রহমান।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেকমন্ত্রী ও ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতা দিলীপ বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম,জাতীয় পার্টি (মঞ্জু) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, জাসদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, শিবলী সাদিক, বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রেজাউর রশিদ খান, দিনাজপুর জেলা জাসদের সভাপতি অ্যাড. লিয়াকত আলী।

সমাবেশ পরিচালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল ও জাসদের সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলাম।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘দেশ যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে তখন ব্যাপক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া দেশি-বিদেশি দালালদের নিয়ে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। তার সকল ষড়যন্ত্র ১৪ দলের নেতাকর্মীরা দেশের মানুষকে নিয়ে প্রতিহত করবে। একটি গোষ্ঠী দেশের মানুষকে জিম্মি ও ধর্মের নামে ইসলামী জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে একের পর এক দেশি-বিদেশি ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকদের হত্যা ও অপহরণ করছে। ইতিমধ্যেই জঙ্গিদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী চিহ্নিত করেছে এবং অনেককেই আটক করেছে। এতে করে তাদের পরিকল্পনা ফাঁস হয়ে গেছে, জনগণ জেনে গেছে বিএনপি-জামায়াতেরাই এই জঙ্গিবাদের সাথে জড়িত।’

তিনি আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়া এখন ঐক্যের ডাক দিচ্ছে, কিন্তু জামায়াতকে নিয়ে কখনই জাতীয় ঐক্য হতে পারে না, আর বিএনপি কোনোদিনই জামায়াতকে ছাড়তে পারবে না। খুনি, সন্ত্রাসী, নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী, ক্ষমতা লোভী বিএনপি-জামায়াতের নেত্রী খালেদা জিয়ার সাথে কোনো আপোষ হবে না।’

এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে দিনাজপুর জেলার ১৩টি উপজেলা থেকে বিপুল সংখ্যক ১৪ দলের নেতাকর্মী বিভিন্ন যানবাহন ও হেটে ফেস্টুন, ব্যানার নিয়ে জঙ্গি ও সন্ত্রাস বিরোধী শ্লোগান দিয়ে সমাবেশে আসতে থাকে। দুপুর ৩টার মধ্যে শহরের ইন্সটিটিউট প্রাঙ্গণ ও পাশ্ববর্তী লোকভবন এবং রাস্তায় কানায়-কানায় লোকজন ভরে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.