আজ : ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Breaking News

সরকারি কর্মকর্তারা পদোন্নতি পাবে পয়েন্টের ভিত্তিতে

ঢাকা : সরকারি কর্মকর্তাদের পদোন্নতিতে নতুন একটি পদ্ধতির কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। এ বিষয়ে তিনি নিজের ভেরিফায়েড পেইজে একটি স্ট্যাটাস দেন।

জয় তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘ই-ফাইলিং সরকারের বিভিন্ন সংস্থায় ব্যবহার হবে যেনো ফাইল দ্রুত প্রক্রিয়াজাত হয়। স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফাইলগুলো প্রক্রিয়াধীন হবার সময় পর্যবেক্ষণের ব্যবস্থা থাকবে। সরকারি কর্মকর্তাদের এই ফাইল প্রক্রিয়াধীন হবার সময় বিবেচনায় পয়েন্ট দেয়া হবে এবং এই পয়েন্টগুলো তাদের অধিবৃত্তি এবং পদোন্নতি পেতে কাজে আসবে। তাই বিলম্ব না করার জন্য এটি তাদের অনুপ্রেরণা যোগাবে।’

ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে বর্তমান সরকারের অর্জন সম্পর্কে তিনি বিভিন্ন সফলতার কথা উল্লেখ করেন। স্ট্যাটাসে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এরইমাঝে সরকারি কাজের জন্য ই-টেন্ডারিং এবং ই-ফাইলিং পদ্ধতির পরিচয় ঘটিয়েছি। ধীরে ধীরে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এই পদ্ধতি অবলম্বন করবে। ই-টেন্ডারিং দুর্নীতি রোধ করবে কারণ, টেন্ডার জমা দিতে আর কোনো অফিসে যাবার প্রয়োজন হবে না। টেন্ডারগুলোও ইলেক্ট্রনিক্যালি প্রক্রিয়াজাত হবে তাই এতে কারোর হস্তক্ষেপ করার সুযোগ থাকবে না।’

জন্ম নিবন্ধন সহ অন্যান্য ডিজিটাল দলিলগুলোর কথা উল্লেখ করে তথ্য উপদেষ্টা জানান, ‘নাগরিকদের বিভিন্ন নিবন্ধন প্রক্রিয়া যেমন জন্ম নিবন্ধন, চালকের লাইসেন্স প্রভৃতি সব সনদ জাতীয় পরিচয়পত্রের সিস্টেমে সংযুক্ত হচ্ছে যেনো জালিয়াতি নির্মূল করা যায়। প্রথম থেকে সিস্টেমগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা এভাবে ডিজাইন করা হচ্ছে। এসবে সেগমেন্টেশনের পাশাপাশি এডভান্স এক্সেস কন্ট্রোল সিস্টেম রয়েছে।’

দেশের ইন্টারনেট সেবার উন্নতির লক্ষ্যে পৌঁছে কার্যক্রম চলমান আছে এমন তথ্য দিয়ে তিনি জানান, ‘২০১৮ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে ফাইবার অপটিক ক্যাবেল নিয়ে যাবার একটি প্রকল্প চালু রয়েছে। সেই সময়ের মাঝে লক্ষ্য হচ্ছে ৫ মেগাবিট প্রতি সেকেন্ডের কানেকশন সব জায়গায় সহজলভ্য করা।’

সরকারি ফর্ম উত্তোলন এবং জমাদান ইন্টারনেটের মাধ্যমে সহজ করা হয়েছে বলে তিনি তার স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন। জয় জানান, ‘আপনি যদি এখনও না জেনে থাকেন, আমাদের সরকারের কেন্দ্রীয় ওয়েব পোর্টালে একটি সেকশন ইতিমধ্যে রয়েছে যেখানে সকল সরকারি ফর্ম সহজলভ্য করা হয়েছে, যেনো যে কেউ তা ডাউনলোড করতে পারে। এদের মাঝে বেশিরভাগই ফর্মই পূরণ করে আবার অনলাইনেই জমা দেয়া যায়। আপনাকে সরকারি অফিসে আসতে হবে না যদি না টাকা পরিশোধ বা অন্য নথি জমা করার বিষয় থাকে।’

আওয়ামী লীগ সরকারের ভূয়সি প্রশংসা করে তিনি তার স্ট্যাটাস শেষ করেন। সংবাদ লেখা পর্যন্ত সজীব ওয়াজেদ জয়ের স্ট্যাটাসে ২ হাজার ১০০ লাইক এবং ১৭৩ টি শেয়ার হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.