আজ : ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Breaking News

শিক্ষামন্ত্রী ভালো বইয়ের মাধ্যমে বিবেক জাগ্রত করতে হবে

জঙ্গিবাদ থেকে দূরে রাখতে শিক্ষার্থীদের মূল্যবোধসম্পন্ন, সৃজনশীল হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।
ভালো বইয়ের মাধ্যমে বিবেক জাগ্রত করতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী
আজ শনিবার বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এসব কথা বলেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শুধু ভালো গাড়ি চড়লে, বড় স্কুল-কলেজে পড়লেই হবে না। শিক্ষার্থীদের সবার আগে ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য বেশি বেশি ভালো বই পড়াতে হবে। এমন বই, যা তাদের বিবেক জাগ্রত করবে।
জঙ্গিবাদকে বৈশ্বিক সমস্যা আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরাও জঙ্গিবাদের শিকারে পরিণত হচ্ছি। আমাদের দেশের উচ্চবিত্ত পরিবারের মেধাবী ছেলেদের দলে ভেড়ানো হচ্ছে। সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার সঙ্গে জড়িত যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নাম এসেছে তাদেরকে আগেই সতর্ক করা হয়েছিল বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।
শিক্ষাব্যবস্থায় পুরোপুরি ভাবে সৃজনশীল পদ্ধতি প্রয়োগ করতে পারেননি বলেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ নিজেই।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষকদের সৃজনশীল পদ্ধতির ওপর বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু শিক্ষকরা এটা পুরোপুরি কাজে রাগাতে পারছেন না। শুধু মুখস্থ বা নকল করে পাস করলে হবে না। শিক্ষার্থীদের প্রকৃত অর্থে সৃজনশীল করে তুলতে হবে। যেন শিক্ষকরা একটি বিষয় পড়ানোর পর শিক্ষার্থীরা আরও পাঁচটি কাজ একাই করতে পারে। তাহলেই সৃজনশীল পদ্ধতি কাজে দেবে।
মন্ত্রী বলেন, ‘কোনো শিক্ষার্থী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১০ দিন অনুপস্থিত থাকলেই জঙ্গি হবে এমন কথা আমরা বলিনি। এ নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। আমরা বলেছি, ১০ দিন অনুপস্থিত থাকলে শিক্ষকরা এর কারণ খুঁজে দেখবেন।’
পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় ঢাকা বিভাগের মোট ১৫৩ জন সংগঠককে সম্মাননা দেওয়া হয়। সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহান্সমেন্ট প্রজেক্টের (সেকায়েপ) এই কর্মসূচির মোট সংগঠকের মাত্র ১০ শতাংশকে সেরা সংগঠক হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে বলে জানান আয়োজকেরা।
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, ‘যখন কাজ উন্নতমানের হয়, তখনই পুরস্কার দেওয়া হয়। যোগ্যতা কখনো অপুরস্কৃত থাকে না’।
অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড এক্সেস এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (সেকায়েপ) এর আওতায় ঢাকা বিভাগের ৪৪টি উপজেলা থেকে আসা ১৫৩ জন সংগঠককে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব ও সেকায়েপের প্রকল্প পরিচালক ড. মো. মাহামুদ-উল-হক প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.