আজ : ২৫শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
Breaking News

ব্রাজিলকে লজ্জায় ডুবাল ইরাক । আর্জেন্টিনা জিতল ।

রিও অলিম্পিক ফুটবলে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও লজ্জা পেল স্বাগতিক ব্রাজিল। এবার ইরাকের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করল তারা। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করে স্বাগতিক ব্রাজিল অলিম্পিক ফুটবলের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয়ার শঙ্কায় পড়েছে। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে ড্র করার পর ব্রাজিল সোমবার সকালে গোলশূন্য ড্র করেছে ইরাকের সঙ্গে। এর ফলে দুই ম্যাচ শেষে তাদের পয়েন্ট দাঁড়িয়েছে মাত্র দুইয়ে। সমান পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে ইরাকও। চার পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ডেনমার্ক। ব্রাজিলের শেষ ম্যাচ ডেনমার্কের বিপক্ষে। পরবর্তী রাউন্ডে উঠতে হলে তাদের বড় ব্যবধানে জিততে হবে। কারণ শেষ ম্যাচে ইরাক খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। সে ম্যাচে তারা জিতলে তাদেরও আশা টিকে থাকবে। যদি শেষ ম্যাচে ব্রাজিল জিততে ব্যর্থ হয় তাহলে তাদের পরবর্তী রাউন্ডে ওঠার আশা শেষ হয়ে যাবে।উঠতি তারকাদের নিয়ে গড়া ব্রাজিল পরপর দুই ম্যাচে গোল করতে না পারায় সমর্থকরা হতাশ হয়ে নিজ দেশের খেলোয়াড়দের ধুয়ো ধ্বনি দেয়। সমর্থকদের একাংশ শেষদিকে ইরাক ইরাক বলে চিৎকারও করেন। অনেকেই মার্তা মার্তা বলে সস্নোগান দেন। মহিলা দলের খেলোয়াড় মার্তা দারুণ খেলছেন এ অলিম্পিকে এবং তারা ইতোমধ্যেই কোয়ার্টার ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে। খেলোয়াড়দের মধ্যে রেনেটা অগাস্টোই সবচেয়ে বেশি ধুয়ো ধ্বনি শোনেন। শেষ আধঘণ্টা তিনি বল ধরলেই বিদ্রুপ করেছেন সমর্থকরা। তার ওপর ইনজুরি টাইমে সহজ সুযোগ নষ্ট করে তিনি খলনায়কে পরিণত হন। গ্যাব্রিয়েল বার্বোসা দারুণভাবে ডান দিক থেকে গোলরক্ষককে কাটিয়ে বল দিয়েছিলেন তাকে। তিনি বল নিয়ন্ত্রণে না নিয়েই ভলির সাহায্যে গোল করতে গেলে সেটি ক্রসবারের ওপর দিয়ে বাইরে চলে যায়।ম্যাচের প্রথম সুযোগটি পেয়েছিল ইরাকই। খেলার আট মিনিটে আবদুল রহিমের নেয়া শট পোস্টে লেগে প্রতিহত হলে গোলবঞ্চিত হয় তারা। অবশ্য সুযোগ পেয়েছিল ব্রাজিলও। নেইমারের ফ্রি কিক অল্পের জন্য জালে যায়নি। রেনেটা অগাস্টোর দূরপাল্লার শট পোস্টে লাগে। গোল করার জন্য মরিয়া হয়ে আক্রমণ করেছে ব্রাজিল। কিন্তু তাদের পক্ষে ইরাকের রক্ষণভাগকে পরাস্ত করা সম্ভব হয়নি। ব্রাজিলীয় সুপার স্টার নেইমার ছিলেন সুপার ফ্লপ। তার কাছে বল গেলেই দুই তিনজন তাকে ঘিরে ধরেন এবং বেশিরভাগ সময়ই বল কেড়ে নেন। এ ম্যাচে তাকে নেইমার বলে চিনতেই কষ্ট হয়েছে। ব্রাজিল সব মিলিয়ে গোল লক্ষ্য করে শট মেরেছে ২০টি। কিন্ত এগুলো থেকে একটি গোলও তারা করতে পারেনি। এমনকি এর মধ্যে হাতে গোনা কয়েকটি বাদে বাকিগুলো গোলের সম্ভাবনাও সৃষ্টি করতে পারেনি। উপর্যুপরি ব্যর্থতার কারণে নেইমারকে বেশ হতাশ দেখা যায়। এমনকি তিনি প্রতিপক্ষের গায়ে বল মেরে হলুদ কার্ডও দেখেন।ব্রাজিলের লজ্জার দিন প্রথম জয়ের স্বাদ পেয়েছে আর্জেন্টিনা। ২-১ গোলে আলজেরিয়াকে হারিয়েছে তারা। ‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পর্তুগালের কাছে ২-০ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টিনা।’এ’ গ্রুপের অন্য ম্যাচে জয় পেয়েছে ডেনমার্ক। ১-০ গোলে ডেনমার্ক হারিয়েছে দক্ষিন আফ্রিকাকে। ফলে ২ খেলা শেষে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে ড্যানিশরা। ২ পয়েন্ট করে সংগ্রহে আছে ব্রাজিল ও ইরাকের। আর ১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়েবসাইট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.