আজ : ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Breaking News

থানা পুলিশকে উপেক্ষা করে রাতের আধারে ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের বসত ঘর দখল!

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি :বাকেরগঞ্জের উপজেলার ১৪নং নিয়ামতি ইউনিয়নের পূর্ব মহেশপুর গ্রামের মৃত রুস্তম আলী শিকদারের পুত্র ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসী কামাল শিকদার ও সোহরাব সিকদার গংরা সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে রাতের আধারে বসত ঘর দখল ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয় গেছ।অভিযোকও ভুক্তভুগি সুত্রে যানাযায়।
মোঃ শাহ আলম চাপরাশির পুত্র মোঃ শাহিন চাপরাশি। সংবাদ মাধ্যমকে জানান কিছুদিন পূর্বে সন্ত্রাসী ও ভূমিদস্যু মৃতঃ রুস্তম আলী সিকদারের পুত্র কামাল শিকদার, সোহরাব সিকদার, জলিল শিকদার, হাবিবুর রহমান সিকদার, সাত্তার শিকদার মামুন শিকদার, এবং একই ইউনিয়নের হাসান নগর গ্রামের জালাল গাজীর পুত্র মিজান কাজি ও রেজাউল গাজী গংরা জোরপূর্বক তার সাব কবলা মূলে ক্রয়কৃত সম্পত্তি যাহার দলিল নং ১৩৪৪১৮ জেল নং১৬ মৌজা পূর্ব মহেশপুর খতিয়ান নং ২৯২/২৯৩/ ৪৮৩/৪৯৮/ দাগ ১৭০০-১৭০১১৮০০১৮৬০-১৮৬২-১৮৬৩-১৮৬৬-১৮৭৯-১৮৮১-১৮৮২-ও১৯৯৪মোট জমি ৩৩ সতক।
সালিশ বৈঠকে উপেক্ষা করে অনধিকার প্রবেশ করে বসত-ঘরের তালা ভেঙে জবর দখল ও লুটপাট করে। এতে বাধা দিলে উল্টো মোঃ শাহিন চাপরাশির বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানায় মিথ্যা অভিযোগ ও সন্ত্রাসী কামাল শিকদারের স্ত্রী ঝুমুর বেগম বাদী হয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (খ) বাকেরগঞ্জ আমলি আদালতে মিথ্যে মামলা দায়ের করেন যাহার নাম্বার ১২/২০২১ তদন্ত চলমান এবং একই আদালতে এমপি মামলা ৮৫/২০২১ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় মাননীয় আদালত খারিজ করে দেন। থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে এসআই আঃ রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে, শান্তি শৃঙ্খলার স্বার্থে ইউ’পি চেয়ারম্যান মোঃ মাসুম মাস্টার কে অবহিত করেন। বিষয়টি মীমাংসার নিমিত্তে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে সালিশ মীমাংসার জন্য ঘরটি তালাবদ্ধ করে আসেন। বেশ কয়েকবার সালিশ মীমাংসায় বসা ও জমির মাপজোপ হওয়ার পরে চূড়ান্ত রায়ের দিন ধার্য করলে নিশ্চিত পরাজয় জেনে ভূমিদস্যু কামাল বাহিনী তাদের পক্ষে দখলকৃত বসত-ঘরের জমির কোন দলিল প্রমাণ না দিতে পারায় সালিশরা উভয় পক্ষের দলিল ও কাগজপত্র পর্যালোচনা করে রায় প্রদান করার তারিখ ধার্য করেন। গ্রাম্য সালিশ বৈঠকের সিদ্ধান্ত দেয়ার আগেই পেশিশক্তি বলে শাহিন চাপরাশির ক্রয়কৃত সম্পত্তিতে, বসত ঘরে জোরপূর্বক ভোররাত ৫ টা নাগাদ জবর দখল ও লুটপাট চালান। ভাঙচুর ও লুটপাটের খবর শুনে বাধা দিতে গেলে সংঘবদ্ধ চক্র গত ১৯ জানুয়ারি ভোররাত ৫ টায় সাহিন চাপরাশি কে লাঞ্চিত করে হত্যার উদ্দেশ্যে সশস্ত্র হামলা চালায় জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে সাহিন পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। অন্যথায় তাকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলত সন্ত্রাসীরা । অন্য কোন উপায় খুজে না পেয়ে জীবনের নিরাপত্তায় বাকেরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করি। এছাড়াও, কামাল বাহিনীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপকর্ম করায় ।
তাদের বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানাসহ বিভিন্ন জায়গায় একাধিক মামলা রয়েছে । এ বিষয়ে নিয়ামতি ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ মাসুম মাস্টার সংবাদমাধ্যম কে জানান বাকেরগঞ্জ থানার সাব-ইন্সপেক্টর আব্দুর রহমান ও অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল কালাম ঘটনাস্থলে এসে আমাকে ও অত্র ওয়াড ইউপি সদস্য কে অবহিত করে বসতবাটি তালাবদ্ধ করেন। আমরা সালিশ মীমাংসা চূড়ান্ত অবস্থায় পৌছলে কামাল সিকদার গংরা তালা ভেঙে শাহিন চাপরাশির বসত ঘর টি জবর দখল করে নেন।আমি ঘটনাটি বাকেরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ কে অবহিত করি।
এ বিষয়ে বাকেরগঞ্জ থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলাউদ্দিন মিলন সংবাদ মাধ্যমকে জানান, বসতঘর দখলের ঘটনাটি আমি যোগদান করার পূর্বে ঘটেছে আমিও একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অপরাধী যতই শক্তিশালী হোক না কেন কাউকেই বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না।
বর্তমানে ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসী কামাল বাহিনীর অব্যহত হুমকির মুখে ভুক্তভোগী পরিবার টি জীবনের নিরাপত্তা-হীনতায় ভুগছেন। যেকোনো সময় সন্ত্রাসী বাহিনী বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটাতে পারে বিধায় প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন ভুক্তভোগীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.