আজ : ২০শে জানুয়ারি, ২০১৮ ইং , ৮ই মাঘ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
Breaking News

যে বিশেষ ঘটনার জেরে ধোনির জীবনে আসেন সাক্ষী

ভারতের সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনির জীবনে ৭ জুলাই এক বিশেষ দিন। ঠিক এই দিনটিতেই সাক্ষী সিংহ রাওয়াতের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। বলাই বাহুল্য, ক্রিকেট জীবনে সাফল্য ও ব্যর্থতার দিনগুলোয় পাশে পেয়েছেন সাক্ষীকে। এতটা পথ একসঙ্গে পার করার পরেও দু’জনই মনে করছেন এখনও অনেকটাই রাস্তা বাকি।

সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ‘দৈনিক ভাস্কর’-এ প্রকাশিত এক খবর থেকে জানা গেছে বিশেষ একটি তথ্য। ইতোমধ্যেই সেই খবর ধোনি ভক্তদের মধ্যে আলোড়ন তৈরি করেছে। ‘দৈনিক ভাস্কর’-এর সেই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটা বিশেষ ঘটনা না ঘটলে হয়তো ধোনির জীবনে আসতেন না সাক্ষী। তাদের দুইজনকে কাছে নিয়ে আসে সামান্য একটি চাবি।

শুনতে অবাক লাগলেও তা একেবারে সত্যি। ঘটনাটি ঘটে ২০০৮ সালের কলকাতাতেই। সাক্ষী তখন কলকাতার তাজ হোটেলে ইন্টার্নশিপ করতেন। তিনি হোটেল ম্যানেজমেন্ট নিয়ে পড়াশোনাও করেছেন। সেই সময়ে ইডেনে ভারত-পাকিস্তান খেলা চলছিল। ধোনি-সহ ভারতীয় দল কলকাতার তাজ হোটেলে উঠেছিল। সেখানেই সাক্ষীর সঙ্গে তার প্রথম পরিচয় হয়।

একদিন রুমে ফিরতে গিয়ে ধোনি হঠাৎ বুঝতে পারেন রুমের চাবিটি তিনি হারিয়ে ফেলেছেন। সামনে সাক্ষীকে দেখে তার থেকেই সাহায্য চান। সাক্ষী তাকে প্রথম দেখায় চিনতেই পারেননি। হোটেলের অন্য গেস্টদের মতোই ধোনির আইডি দেখতে চান সাক্ষী। রুমের নম্বরও জিজ্ঞাসা করেন সাক্ষী। এই ব্যাপারটি ধোনির পছন্দ হয়নি এবং তিনি আইডি দেখাতে অস্বীকার করেন।

এরপর সাক্ষীও মুখের উপর বলে দেন, আইডি না দেখালে কোনও সাহায্য তিনি করতে পারবেন না। পরে হোটেলের অন্য কর্মীদের সাহায্যে এই সমস্যার থেকে উদ্ধার পান ধোনি। সাক্ষীও ততক্ষণে ধোনির আসল পরিচয় জানতে পেরে মনে মনে লজ্জিত হয়েছেন। একটি ফুলের তোড়া নিয়ে তিনি ধোনির কাছে ক্ষমা চাইতে তার রুমে পৌঁছন। সাক্ষীর এই বিনয়ী ভাবই ধোনিকে আকৃষ্ট করে। বলা যায় একরকম এখান থেকেই তাঁদের সম্পর্কের সূচনা হয়। ২০১০ সালে ধোনি-সাক্ষীর বিয়ে হয়। পরের বছরেই ভারত বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.