আজ : ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

বরিশাল নগরীর ইয়াবা স¤্রাট সেলিমের ও ফয়সালের নারী ব্যবসার অন্তরালে ইয়াবা ব্যবসা ।

নিজস্ব প্রতিবেদক : বরিশাল নগরীর পোট রোড এলাকায় ও কসাইখানা স্বঘোশিত মহারাজা ইয়াবা সম্্রাট ফয়সাল ও সেলিমের নারী ব্যবসার অন্তরালে ইয়াবা ব্যবসা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত মাদক মুক্ত দেশ গড়ার অংশ হিসেবে প্রশাসনের মাদক বিরোধী অভিজান চলা কালিন সময়ে সেলিম ও ফয়সাল পালিয়ে থাকলেও অভিযান শেষ হওয়ার পর ফের প্রকাশ্যে এসেছে । যা নিয়ে স্থানিয় জনগনের মাঝে ব্যাপক চমক ¯ৃস্টি হয়েছে। প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে নগরীর পোট রোড ব্রিজ সহ দক্ষিনাঞ্চলের রমরমা ইয়াবা ব্যবসা করে যুুবসমাজকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অনুসন্ধানে জানা গেছে , পোটরোড ব্রিজ স্বঘোষিত মহারাজা ফয়সাল ও সেলিম আবাসিক হোটেলে কমজীবন শুরু করে ৫ শত টাকা রোজগার করতে সময় লাগত তাদের ২ দিন । তবে তারা যেন আলাদিনের প্রদিপের জোরে লাখপতি হয়েছে তার মধ্যে মাদক ব্যবসা ও আবাসিক হোটেল সী-ভিউ, চিল ভাড়া নিয়ে পতিতা ব্যবসা অন্যতম। ইয়াবা ব্যবসায় রাতারাতি লাখপতি হয়ে ইয়াবা ব্যবসার সাথে আরো কিছু অবৈধ ব্যবসা নারী পাচার । তাদের যৌনতার ভিডিও ফুটেজ তৈরি করে দেশের বিভিন্ন এলাকায় চড়া দামে বিক্রি করে আসছে। অনতু বয়স ১৪ (ছদ্দ)নাম কিশরি আটকিয়ে নামে মাত্র বিবাহ করে তাকে দিয়ে মাসের পর মাস ইচ্ছার বিরুদ্ধে দেহ ব্যবসা করে আসছে ফয়সাল। একসময় খুচরা ফেনসিডিল ব্যবসায়ী ফয়সাল ও সেলিম এখন ইয়াবার ডিলার। আর এই ইয়াবা ব্যবসায় সে গড়ে তুলেছে এক বিশাল সিন্ডিকেট। যাদের মাধ্যমে সে ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করে । ইয়াবার ডিলার ফয়সালের এর সাথে সেলিম সিন্ডিকেট করে পলাশপুর , রসুলপুর পোট রোড ্এলাকায় এক এক জন মাদক সম্রাট নিয়ন্ত্রন করে। তবে সেলিম ও ফয়সাল সবসময় ধরাছোয়ার বাহিরে থাকে। কারন সে মোটা অংকের টাকায় বিভিন্ন সেক্টর ম্যানেজ করে। র‌্যাব , পুলিশ আর সাংবাদিক ফয়সালে ও সেলিমের পকেটে থাকে বলে জানান। চলবে পাঠক চোঁখ রাখুন আগামী পর্বে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.