আজ : ২৩শে নভেম্বর, ২০২০ ইং , ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডে তৃতীয়বারের মতো কাউন্সিলর হিসেবে নজরুল ইসলামকে দেখতে চায়

মোঃজিয়াউল হক : আগত বাকেরগঞ্জ পৌর নির্বাচনে পৌরসভা বিভিন্ন ওয়ার্ডে নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে প্রকাশ্যে অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান দিচ্ছেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে ভোটারদের মধ্যেও দেখা দিয়েছে উৎসাহ-উদ্দীপনা।
বাকেরগঞ্জ পৌরসভা ৯ নং ওয়ার্ডের বারবার নির্বাচিত কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম আকন সদা হাস্যজ্জল মানুষ তিনি। ইতিমধ্যে এলাকাবাসীর কাছে আস্থার প্রতিক হিসেবে পরিচিত লাভ করেছেন এই মানুষটি। আদর্শ ও ন্যায় নীতির মধ্যে থেকে এলাকার মানুষের পাশে থাকাই এ মানুষটির লক্ষ্য। কোন কিছুর লোভ লালসা আর হিংসা তাকে আক্রমণ করতে পারেনি। এসব কারণেই এলাকার অনেকেই প্রশংসা করেন তার। স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছেও তিনি খুবই প্রিয়।
বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর শাহজাহান আকন এর বড় ছেলে তিনি। তার বাবা শাহজাহান আকন ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। পাঁচ বছর দায়িত্বে থেকে এলাকার সাধারণ মানুষের মন জয় করেন শাহজাহান আকন। ধর্ম ভিরু এই নেতা প্রায় সকল শ্রেণি পেশার মানুষের নয়ন মনি-বিশেষনে অভিসিক্ত। পিতার ন্যায় নীতি ও অসহায় মেহনতি মানুষের বন্ধু নজরুল ইসলাম আকন বিপুল ভোটে দ্বিতীয় বার কাউন্সিলর নির্বাচিত হন।
স্থানীয়রা জানান, ছোটবেলা থেকেই তিনি মানুষের দু:খ দুর্দশায় নিজেকে সর্বদা ব্যস্ত রাখতেন। বিবেকের ব্যাকুলতায় যখন যেভাবে পারতেন অসহায়দের পাশে দাড়িয়ে বাড়িয়ে দিতেন সহয়তার কোমল দু’হাত। মানুষের দু:খ-দুর্দশা লাঘবের অক্রিতিম বিবেক বোধ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দেশত্ববোধের গভিরতার টানে তিনি নিজেকে জড়িয়েছেন আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে। বাকেরগঞ্জ সরকারি কলেজের ছাত্র সংসদ থেকেই নিজেকে জরিয়েছেন ছাত্র রাজনীতিতে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক রাজনীতি মিশে আছে তার হৃদয়ে। তিনি ২০১১ সালে প্রথম কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই শাসন শোষনের বৈসম্যের অবসান ঘটিয়ে সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গীমুক্ত পৌরসভা গড়ার লক্ষ্যে মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার নেতৃত্বে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।
তারই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় বারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচিত হন তিনি। মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া’র আস্থাভাজন কাউন্সিলর নজরুল ইসলামকে পৌর সার্ভেয়ার এর দায়িত্ব দেয়া হয়। অত্যন্ত সুনামের সহিত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি রাজনৈতিক সকল কর্মকান্ডে প্রশংসনীয় ভূমিকা থাকায় পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের দ্বিতীয়বারের মতো সভাপতি দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বারবার নির্বাচিত মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়ার নেতৃত্বে ও নির্দেশনায় দলীয় সকল কার্যক্রম এর পাশাপাশি পৌরসভার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে অগ্রণী ভূমিকায় দেখা যায় কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম আকনকে। পৌরবাসির সেবার পাশাপাশি পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড জুড়েই তৈরী হয়েছে কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম আকনের রাজনৈতিক জনপ্রিয়তার শক্তবলায়। দিনের শুরু থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ভক্ত অনুসারী এবং নেতা-কর্মীদের সুখ দুঃখের খবর নেন তিনি।
অনেক বাধা-বিপত্তি এসেছে কিন্তু নিজে কখনো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ থেকে বিচ্যূত হননি। এগিয়ে চলছেন সব প্রতিবন্ধকতাকে পেছনে ফেলে। আর তার কর্মের ফলও তিনি পেয়েছেন প্রিয় সংগঠন থেকে। রাজনৈতিক অঙ্গনে কাজ করতে গিয়ে দলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের যেমন অকুণ্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা পেয়েছেন তেমনি তিনি প্রিয় ৯ নং ওয়ার্ডবাসীর স্নেহ-ভালোবাসা পেয়ে ধন্য হচ্ছেন। তাদের প্রেরণায়ই তিনি এগিয়ে চলছেন নিরন্তর। প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন এলাকাবাসীর সেবা করার। ইতিমধ্যে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া নেতৃত্বে সরকারের দেয়া বিভিন্ন কর্মসূচি বিশেষ ওএমএস, ত্রান, কার্ডের মাধ্যমে চাউল, প্রধান মন্ত্রীর দেয়া উপহারসহ বিভিন্ন কার্যক্রম সুনামের সহিত জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করেছেন। এই করোনা পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া অনেক পরিবারের মাঝে নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী সহযোগিতাও করেছেন।
কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, সবাই এখন সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছি। গভীর রাতেও মানুষ চলাচল করতে পারে নির্বিঘ্নে। তিনি অারো জানান, বাকেরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বারবার নির্বাচিত স্বনামধন্য মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া নেতৃত্বে ও নির্দেশনায় পৌরসভার সহ ৯ নং ওয়ার্ড বাসীর যথাযথ নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ওয়ার্ডের প্রতিটি নাগরিক সেবা দ্রুততার সাথে দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি, তবে সুশৃঙ্খল ও সুন্দরভাবে সকলকে গ্রহণের জন্য সবার প্রতি আমার আহবান ও সবাই সবসময় সহযোগিতা করবেন যাতে আমি সারাজীবন আপনাদের পাশে থেকে উন্নয়ন মূলক প্রতিটি কাজ ৯ নং ওয়ার্ডের মানুষের জন্য করতে পারি। ইতিমধ্য আমি ৯ নং ওয়ার্ডে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের জন্য প্রায় ৩৫ টি গভীর নলকূপ স্থাপন করেছি। আমার রাজনৈতিক অভিভাবক পৌর মেয়র এর সহযোগিতায় ওয়ার্ড এর প্রধান সড়ক পিচ ঢালাই, সিসি ঢালাই সহ প্রত্যেকটি বাড়ির সড়কগুলোকে পাকা রাস্তায় উন্নত করেছি। বেশকিছু কার্যক্রম ইতিমধ্য চলমান যাহা অতি শীঘ্রই বাস্তবায়ন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.