আজ : ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং , ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

দোকানে ইয়াবা রেখে চাঁদা দাবি। ব্যবসায়ীকে ফাঁসাতে গিয়ে জনরোষের শিকার পুলিশ।

যশোরের কেশবপুরে এক ব্যবসায়ীর দোকানে ইয়াবা ট্যাবলেট রেখে তাকে ফাঁসাতে গিয়ে জনরোষের শিকার হয়েছেন পুলিশের চার সদস্য।

রোববার রাত ৮টায় কেশবপুর উপজেলার জাহানপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

বাজার ব্যবসায়ীসহ হাজার হাজার জনতা ভালুকঘর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মিজানসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে এসময় তিন ঘন্টা একটি দোকানে তালাবদ্ধ করে রাখে। পুলিশের অপর সদস্যরা হলেন- কনস্টেবল ইসমাইল হোসেন, ইউসুফ আলি ও যোবায়ের রহমান।

পরে কেশবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দোষীদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে জনরোষ থেকে তাদের উদ্ধার করে।

ওই পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পকেটে করে ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে তারা বাজরের আব্দুল লতিফের মুদি দোকানে রাখার চেষ্টা করে। ইয়াবা রাখার অভিযোগে ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের ভয় দেখিয়ে তার হালখাতায় আদায়কৃত ৮৫ হাজার টাকাও নিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এই পুলিশ সদস্যরা।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি খলিলুর রহমান সরদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, পকেটে করে ইয়াবা ট্যাবলেট এনে মুদি দোকানি আবদুল লতিফের দোকান থেকে তা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। এরপর বাজারের ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের ভয় দেখিয়ে তার দোকানের ক্যাশে আদায়কৃত টাকা নেয়ার চেষ্টা করে ভালুকঘর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ও তার সঙ্গীয় ফোর্স।

বাজার ব্যবসায়ী সভাপতি আরও বলেন, ঘটনা দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার জনতা পুলিশ সদস্যদের ঘেরাও করে। এরপর তাদের ৪ জনকে একটি দোকানে আটকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়।

এসময় বাজার ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসী ওই পুলিশ সদস্যদের বিচার দাবিতে বিক্ষোভ করে।

কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ সহিদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, এ ঘটনায় রাত সাড়ে ১০টায় জাহানপুর বাজারে গিয়ে মাইকে এসআই মিজানকে প্রত্যাহার ও বিভাগীয় ব্যবস্থার নেয়ার ঘোষণা দিলে জনগণ শান্ত হয়। এরপর রাত ১১টার দিকে তালাবদ্ধ অবস্থা থেকে এসআই মিজান ও ৩ কনস্টেবলকে উদ্ধার করা হয়।

ওসি জানান, এস আই মিজানকে ভালুকঘর পুলিশ ক্যাম্প থেকে প্রত্যাহার করে যশোর পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.