আজ : ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

একটি নয়, ২টি সন্তান ভালো

বেশির ভাগ আধুনিক বাবা-মা আজকাল একটার বেশি সন্তান নিতে চান না, কারণ তারা চাকরিজীবী। কাজের সুবাদে শহরে থাকায় তাদের একাকেই সন্তান লালন-পালন করতে হয়। এছাড়া বাবা-মায়ের কাছে দু’টি সন্তান লালন-পালন করার সময়ও থাকে না, তাই তারা একটি সন্তানই যথেষ্ট মনে করেন।

এখন প্রশ্ন হলো একটা সন্তান কী আপনার জন্য যথেষ্ট, না কী আরও একটা সন্তান হলে ভালো হয়?

বোল্ডস্কাই সূত্র জানায়, দুটো সন্তান থাকার অনেক উপকারিতা আছে। একটি সন্তান হলে যে সমস্যা হয়, দ্বিতীয় সন্তান সেগুলোর অনেকটাই সমাধান করে দেয়।

শুধু প্রথম সন্তান বিগড়ে যাওয়া আটকাতে না, এর আরও অনেক উপকারীতা রয়েছে। আপনার পরিবারে দুটো সন্তান থাকা সব সময়ই দরকার কারণ, বাবা মা হিসেবে এটা যেমন ভালো, তেমনই এটা আপনার সংসারে সমতা বজায় রাখে।

আপনি যদি আরও একটা সন্তানের জন্য নিজেকে তৈরি মনে করেন, তাহলে দ্বিতীয় সন্তান থাকার সুবিধেগুলো ভালো করে জানা উচিত। তাহলে দেরি কেন? আসুন জেনে নিই দ্বিতীয় সন্তানের উপকারীতা কী?

* দ্বিতীয় বার গর্ভধারণ মানে রক্ত পরীক্ষা, স্ক্যান, নিয়মিত চেকআপ, কিন্তু এরসবই আপনার জানা। কারণ আগেও একবার আপনি মা হয়েছেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আপনি আপনার পুরোনো ডাক্তারের কাছেই আবার যাবেন।

* আপনি যদি প্রসববেদনায় ভয় পান তাহলে জানুন, অত চিন্তার কিছু নেই। দ্বিতীয় সন্তান প্রসব অনেক তাড়াতাড়ি হয়। শুধু কিছু ঘণ্টার যন্ত্রণা মাত্র।

* আপনি যদি প্রথমবার সি-সেকশান করে থাকেন, তাহলে হয়তো দ্বিতীয়টার জন্যও তাই করবেন।

* আবার সন্তান হলে খরচ বাড়বে, ভাবছেন? আরে আপনি যা কিছু প্রথম সন্তানের জন্য কিনেছিলেন তাইতো যথেষ্ট, যেমন : জামা কাপড়, খেলনা সব দ্বিতীয় সন্তানের কাজে লাগবে। শুধু ব্যবহার করা ন্যাপি ছাড়া।

* আপনি আপনার সন্তানকে শেয়ার করা শেখাতে পারবেন। কোনও কিছু ভাগ করতে শেখা, এক অতি প্রয়োজনীয় নৈতিক গুণ, যেটা আপনি আপনার সন্তানকে সহজেই শেখাতে পারবেন যদি দ্বিতীয় সন্তান থাকে। একমাত্র সন্তানকে শেয়ার করা শেখানো মুস্কিল ও স্বাভাবিকভাবেই সে স্বার্থপর হয়ে বড় হয়।

* যদি আপনি প্রথম ও দ্বিতীয় সন্তানের মধ্যে তফাত ঠিক বোঝেন, তাহলে দেখবেন প্রথমজন দ্বিতীয়টাকে বড় হতে সাহায্য করছে। সবচেয়ে বেশি যত্ন ও খেয়াল দ্বিতীয়টার প্রথম সন্তানই রাখছে।

* বেশির ভাগ কর্মজীবী বাবা-মায়ের নালিশ থাকে, বাচ্চা সব সময় বায়না করে নিজের দিকে সময় দেয়ার জন্য। কিন্তু বাড়িতে যদি দুটো বাচ্চা থাকে, তারা নিজেদের মধ্যে খেলাধুলা ও মারপিট করেই সময় কাটাতে ব্যস্ত থাকবে। আপনাকে বিরক্ত করার সময় ওদের হাতে থাকবে না।

* প্রায় সব বাবা মায়েরই একই চিন্তা, তারা বাসায় না থাকলে সন্তানের কি হবে? কিন্তু দুই সন্তান মানে, একে অপরের জন্য থাকবে আপনি না থাকলেও। দুজনকে দুজনের দায়িত্বে নিশ্চিন্তে রেখে যেতে পারবেন আপনি।

* আপনি কি ভাবছেন আবার সেই শুরু থেকে অক্ষরজ্ঞান,গুণতে শেখা ও পড়াশুনো সব করতে হবে দ্বিতীয়জনের জন্য? একদম ভাববেন না, দ্বিতীয়জন বড়কে নকল করে ঠিক শিখে নেবে প্রাথমিক অনেক কিছুই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Comment moderation is enabled. Your comment may take some time to appear.